থ্যালাসেমিয়া পার্ট ৪ঃ প্রতিরোধ

এ পর্যন্ত আমরা থ্যালাসিমিয়া কিভাবে হয়, কাদের হতে পারে, কি লক্ষণ, কি চিকিৎসা এগুলো নিয়ে আলোচনা করেছি। এটা হবে এ বিষয়ে আপাতত আমাদের শেষ প্রবন্ধ। এবারের বিষয় কিভাবে এই থ্যালাসিমিয়া প্রতিরোধ করা সম্ভব।

বিস্তারিত

থ্যালাসেমিয়া পার্ট ৫ঃ খাবারের তালিকা

থ্যালাসিমিয়া রোগীর খাবার নিয়ে সব সময়ই চিন্তা থাকে, রোগী এবং তার বাবা-মায়ের। এটা বাংলাদেশের সাধারণ খাবারগুলো একটা তালিকা। এই তালিকা অনুসরণ করে চললে আশা করি রোগী ভালো থাকবে।

যে সমস্ত খাবারে অধিক পরিমাণ লৌহ (High Iron Diet) আছে, সেই সমস্ত খাবার অবশ্যই পরিহার করবে এবং যে সমস্ত খাবারে কম পরিমাণ লৌহ ( Low Iron Diet) আছে, সেই সমস্ত খাবার খেতে হবে। তাই থ্যালাসিমিয়া রোগীরা কোন ধরনের খাবে তা নীচের খাদ্য তালিকা থেকে কম লৌহ যুক্ত খাবার বেছে নিবে।

বিস্তারিত

থ্যালাসেমিয়া পার্ট ৩ঃ খাবার ও প্লীহাকর্তন (splenectomy)

থ্যালাসেমিয়া সংক্রান্ত ৫টি প্রবন্ধের সিরিজের এটি ৩য় অংশ। এখানে থ্যালাসেমিয়া রোগীর খাবার ও চিকিৎসার অংশ হিসেবে প্লীহাকর্তন (splenectomy) নিয়ে আলোচনা করবো। আগের অংশ গুলো পড়তে চাইলে নিচের পছন্দের লিংকে ক্লিক করুন। থ্যালাসেমিয়া পার্ট ১ঃ একটি জন্মগত/বংশগত রক্তস্বল্পতা থ্যালাসেমিয়া পার্ট ২ঃ চিকিৎসা থ্যালাসিমিয়া রোগীর খাবার হচ্ছে মূল চিকিৎসার অংশ। রোগীকে সারাজীবন খাবারের নিয়মগুলো মেনে চলতে হয়। … বিস্তারিত

থ্যালাসেমিয়া পার্ট ১ঃ একটি জন্মগত/বংশগত রক্তস্বল্পতা

থ্যালাসেমিয়া কি? থ্যালাসিমিয়া রক্তের একটা রোগ। এ রোগ হলে রক্তের লোহিত রক্ত কনিকার ভেতরে থাকা একটা অনু, হিমোগ্লোবিন সঠিকভাবে তৈরী হয় না। হিমোগ্লোবিন রক্তে অক্সিজেন পরিবহনের মূল মাধ্যম। হিমোগ্লোবিন ঠিকভাবে তৈরী না হলে রক্তের লোহিত রক্ত কনিকা ভেংগে যায়। এই রোগ কাদের হয়? এই রোগ যেকোন ব্যক্তির হতে পারে। ছেলে বা মেয়ে। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে … বিস্তারিত