করোনা ভাইরাস

সারা বিশ্ব এখনও করোনা ভাইরাস অতিমারী মোকাবেলার চেষ্টা করছে। সংখ্যা হিসেবে সবচেয়ে বেশি রোগী পাওয়া গেছে আমেরিকা, ব্রাজিল ও ভারতে। কিন্তু ইতালি, স্পেন এবং যুক্তরাজ্যে অনেক মানুষ এই ভয়াবহ রোগে জীবন হারিয়েছেন। চীনে শুরু হওয়া এই রোগ এখন সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়েছে। এবং এর শেষ কবে হবে তা এখনো নিশ্চিত না। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সেকেন্ড ওয়েভ শুরু হয়েছে। একই সাথে টিকা নিয়ে গবেষণা চলছে। এই বছরের শেষের দিকেই হয়ত আমরা টিকা পেয়ে যাব।  তবে, বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের জন্য এই টিকা কখন পাওয়া যাবে তা এখনই বলা যাচ্ছে না। একই সাথে অতিমারীর উপর টিকার প্রভাব কতদিন থাকবে সেটাও এখনো নিশ্চিত না। কাজেই, অবহেলা আত্বঘাতী হতে পারে। 

করোনা ভাইরাস আপডেট

প্রস্তুত হচ্ছে...

এই ভাইরাস থেকে বাচার জন্য কিছু সহজ নিয়ম মেনে চলতে হয়। যেমন- জরুরী প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের না হওয়া, বের হলে মাস্ক পরিধান করা, ঘন ঘন সাবান-পানি দিয়ে কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড করে হাত ধোয়া ইত্যাদি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে মানুষের মধ্যে এগুলো মেনে চলার প্রবণতা কমে যাচ্ছে। এই প্রবণতা অনেক পরিবারের জন্যই বিপদ ডেকে আনছে। এই বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়ুন করোনা ভাইরাস থেকে কিভাবে বাচবেন?

আসুন নিয়ম মেনে চলি এবং সুস্থ্য থাকি। যদিও করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ফলে বেশিরভাগ আক্রান্তের কোন লক্ষণ থাকে না বা থাকলেও মৃদু লক্ষণ থাকে। তবে, একাংশের ক্ষেত্রে এ রোগ তীব্র হয়ে উঠতে পারে। বিশেষ যাদের বয়স বেশি, ডায়বেটিস, হাইপারটেনশন ইত্যাদি রোগ আছে। এমনও দেখা যাচ্ছে অল্প বয়স্ক আক্রান্তের মাধ্যমে ঝুকিতে আছে এমন লোক আক্রান্ত হচ্ছে। এজন্য প্রত্যেকে নিয়ম মেনে চলা জরুরী।

করোনা নিয়ে মানুষের মধ্যে প্রাথমিকভাবে আতংক দেখা দিয়েছিল, এখন আবার মানুষের মধ্যে অসচেতনতা ছড়িয়ে পড়ছে। একই সাথে বিভিন্ন ভুল তথ্য ছড়িয়ে পড়ছে মানুষের মাঝে। একারণে সঠিক তথ্যের জন্য নির্ভরযোগ্য উৎস পছন্দ করা জরুরী। উদাহারণ হিসেবে-

১। বাংলাদেশ সরকারের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.corona.gov.bd

২। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট Corona Virus Update

৩। সর্বশেষ পরিসংখ্যানের জন্য ওয়ার্ল্ডোমিটার

করোনা ভাইরাসের এই অতিমারী সবারই মহাবিপদ। একা একা কারো পক্ষেই এর হাত থেকে বাচা সম্ভব হবে না। এই করোনা ভাইরাস অতিমারীর মোকাবেলা আমাদের সবাইকে এক হয়েই করতে হবে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ সম্পর্কে আমাদের আরো কিছু প্রবন্ধ উপকারী প্রমাণিত হতে পারে।

আরো গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রবন্ধ

নতুন মায়েদের বিপদজনক রোগঃ প্রসব পরবর্তী মনোব্যাধি (Psychiatric disorders in puerperium)

আমাদের দেশে প্রেগনেন্সিকে খুব সহজ, স্বাভাবিক একটা ব্যাপার মনে করা হয়। অনেক মা-ই অপরিকল্পিতভাবে ঘন ঘন সন্তান জন্ম দিতে দিতে শারীরিক ও মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। আমাদের দেশে একজন মায়ের গর্ভাবস্থায় ও প্রসব পরবর্তী পুষ্টি ও যত্নের ব্যাপারটাই অবহেলিত। সেখানে মানসিক স্বাস্থ্যের (মানসিক চাপ বা মানসিক রোগ বা অন্য যেকোন

Read More »

আমাদের মায়েদের মানসিক স্বাস্থ্য

যারা জানেন না তাদের জন্য প্রথমেই একটু বলে নেই যে,শনিবার (১০ অক্টোবর) সারাবিশ্বে পালিত হয়েছে বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস। বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবসের এবারের প্রতিপাদ্য ‘সবার জন্য মানসিক স্বাস্থ্য: অধিক বিনিয়োগ-অবাধ প্রবাহ।’  বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস হলো পৃথিবীর সবার মানসিক স্বাস্থ্য শিক্ষা ও সচেতনতার দিন। ১৯৯২ সালে প্রথমবার এ দিবসটি

Read More »

সমস্যা যখন লিউকোরিয়া বা সাদা স্রাব

শিশু বা কিশোরী  থেকে শুরু করে বৃদ্ধা পর্যন্ত,আমাদের দেশের নারীরা সবচেয়ে বেশি যেই সমস্যাটি নিয়ে  চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন,তা হলো লিউকোরিয়া বা সাদা স্রাব ও চুলকানি। কখনো কখনো তা শরীরের স্বাভাবিক প্রক্রিয়ার অংশ হলেও কোনো কোনো ক্ষেত্রে সাদা স্রাব ও চুলকানি নির্দিষ্ট কোনো রোগের লক্ষণ হিসেবে প্রকাশিত হয়। তাই এই ব্যাপারগুলো

Read More »

শিশুদের ডায়রিয়াঃ কি করবেন?

শিশুদের ডায়রিয়াঃ কি করবেন? ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়নি এমন শিশু পাওয়া কঠিন। এক সময় ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে শত শত শিশু মারা যেত। বাংলাদেশি একজন চিকিৎসক ও বিজ্ঞানী ডাঃ রফিকুল ইসলাম খাবার স্যালাইন আবিষ্কারের পর থেকে দ্রুত এই মৃত্যু কমে এসেছে। তবে, এখনো এটা বিশ্বব্যাপী ৫ বছরের কম বয়সী শিশুদের মৃত্যুর ২য়

Read More »